fbpx

হিপনোটাইজ কী?

হিপনোটাইজ

এটি একটি বিশেষ মানসিক অবস্থা, যা মানুষের মনোযোগ বৃদ্ধি, একাগ্রতা এবং পরামর্শ/নির্দেশ গ্রহণ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে। হিপনোটাইজকে প্রায়শ’ই তন্দ্রার সাথে তুলনা করা হলেও এটিকে মনোযোগ মনোনিবেশ এবং স্বতন্ত্র কল্পনার রাজ্য হিসাবে আরও ভালভাবে প্রকাশ করা যায়। হিপনোটাইজ অবস্থায় থাকা লোকেদের প্রায়শ’ই নিদ্রারত বলে মনে হয়, তবে বাস্তবে তারা অত্যধিক-সচেতন অবস্থায় রয়েছে।

যদিও প্রচলিত মিথ এবং ভুল ধারণা রয়েছে, তথাপি হিপনোটাইজ হল একটি বাস্তব প্রক্রিয়া যা চিকিৎসাবিদ্যায় ব্যবহার করা হয় ব্যাপক হারে। হিপনোটাইজের চিকিৎসা এবং চিকিৎসা সংক্রান্ত উপকার দেখা গেছে, বিশেষত ব্যথা এবং উদ্বেগ হ্রাস করার ক্ষেত্রে। এমনকি এটাও দেখা গেছে যে হিপনোটাইজ স্মৃতিভ্রম বা বুদ্ধিবৈকল্যের লক্ষণ হ্রাস করতে পারে।

হিপনোটাইজ করার কয়েকটি উপায় রয়েছে-

১. গাইডেড হিপনোটাইজ: হিপনোটাইজের এই ধরণের মধ্যে সম্মোহিত অবস্থাকে প্ররোচিত করার জন্য রেকর্ড করা নির্দেশাবলী এবং সংগীতের মতো সরঞ্জাম ব্যবহার করা হয়। অনলাইন সাইট এবং মোবাইল অ্যাপ্লিকেশনগুলি প্রায়শ’ই এই হিপনোটাইজ ফর্মটি ব্যবহার করে।

২. হিপনোথেরাপি: হিপনোথেরাপি হলো সাইকোথেরাপিতে হিপনোটাইজের ব্যবহার এবং হতাশা, উদ্বেগ, মানসিক আঘাতজনিত স্ট্রেস ডিসঅর্ডার এর চিকিৎসার জন্য লাইসেন্সকৃত চিকিৎসক এবং মনোবিজ্ঞানীদের দ্বারা অনুশীলন করা হয়।

৩. সেল্ফ-হিপনোটাইজ: সেল্ফ-হিপনোটাইজ হলো এমন একটি প্রক্রিয়া, যে প্রক্রিয়ায় কোন ব্যক্তি হিপনোটাইজ অবস্থাকে নিজে প্ররোচিত করে। এটি প্রায়শ’ই ব্যথা নিয়ন্ত্রণ এবং স্ট্রেস কমানোর জন্য একটি সহায়ক হিসাবে ব্যবহৃত হয়। কিছু ক্ষেত্রে দীর্ঘস্থায়ী ব্যথা মোকাবেলা করতে, অস্ত্রোপচার বা সন্তানের জন্মের মতো চিকিৎসা পদ্ধতি দ্বারা সৃষ্ট ব্যথা এবং উদ্বেগ দূর করতে হিপনোটাইজ ব্যবহার করা হয়।

হিপনোটাইজের যে কয়েকটি ব্যবহার গবেষণার মাধ্যমে প্রমাণিত হয়েছে-

১. রিউম্যাটয়েড আর্থ্রাইটিসের মতো দীর্ঘস্থায়ী ব্যথার চিকিৎসা এবং প্রসবের সময় ব্যথা হ্রাস ও ডিমেনশিয়া লক্ষণ হ্রাস, কেমোথেরাপি করানো ক্যান্সার রোগীদের বমি বমি ভাব এবং বমি হ্রাসের জন্য হিপনোটাইজের ব্যবহার করা হয়।

২. হিপনোটাইজ এর মাধ্যমে ধূমপান ছেড়ে দেওয়া, ওজন হ্রাস করা, বা বিছানা ভেজা রোধ করার মতো আচরণগত পরিবর্তনেও হিপনোটাইজের ব্যবহার হয় মাঝেমধ্যে।

সাপ বেজির লড়াই এর ইতকথা জানতে ক্লিক করুন

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button