fbpx

হায়দ্রাবাদী বিরিয়ানির ইতিহাস ও রেসিপি

হায়দ্রাবাদী বিরিয়ানি সাধারণত মুঘলাই এবং ইরানী খাবারের মিশ্রণ হিসাবে ঐতিহাসিক হায়দ্রাবাদ রাজ্যের নিজামের রান্নাঘরে উদ্ভূত বলে বিশ্বাস করা হয়।ভারতীয় রন্ধনশৈলীর একটি মূখ্য উপাদান হলো হায়দ্রাবাদী বিরিয়ানি।

হায়দ্রাবাদী বিরিয়ানি রান্না’র প্রধান উপকরণগুলি হলো তুলশীমালা চাল, বাসমতী চাল, খাসির বা গরুর মাংস অথবা মুরগীর মাংস, দই, পিঁয়াজ, দারুচিনি, লবঙ্গ, এলাচ, তেজপাতা, জায়ফল, কালোজিরা (শাহী জিরা), জৈত্রী, তারকা মৌরি (বিরিয়ানি ফুল), লেবু এবং জাফরান। ধনিয়া পাতা এবং ভাজা পেঁয়াজ খাবারকে সুশোভিত করতে ব্যবহৃত হয়। মূল খাবার লাল মাংস (খাসি/গরুর মাংস) দিয়ে তৈরি করা হয়; তবে মুরগী, মাছ, চিংড়ি বা সবজি খাবারে কিছু বৈচিত্রের জন্য ব্যবহার করা যেতে পারে।

হায়দ্রাবাদী বিরিয়ানি সাধারণত ২ ধরনের: কাচ্চি (কাঁচা) বিরিয়ানি এবং পাক্কি (রান্না করা) বিরিয়ানি।

কাঁচা মাংসের বিরিয়ানি (কাচ্চি) সম্পাদনা
কাচ্চি বিরিয়ানি কাঁচা মাংস দিয়ে তৈরি করা হয় সারা রাত মশলা দিয়ে ম্যারিনেট করে এবং তারপরে রান্নার আগে দই দিয়ে (টকদই) মাখিয়ে রাখা হয়। মাংসের টুকরাগুলো সুগন্ধী বাসমতী চালের আস্তরণের ভেতর রাখা হয় এবং ময়দা দিয়ে হান্ডি (পাতিল) বন্ধ করার পর দমে রান্না করা হয়। তবে এটি একটি সতর্কণীয় প্রক্রিয়া, কারণ মাংস বেশি-সেদ্ধ করা বা কম-সেদ্ধ করা এড়াতে সময় এবং তাপমাত্রার দিকে সূক্ষ্ম মনোযোগ প্রয়োজন।

পাক্কি বিরিয়ানি সম্পাদনা
পাক্কি বিরিয়ানিতে মাংস অল্প সময়ের জন্য ম্যারিনেট করা হয় এবং চাল দিয়ে স্তরীভূত করার আগে এবং ময়দার খামির দিয়ে বন্ধ পাত্রে রান্না করা হয়। পাক্কি আখনিতে (রান্না করা রসা ঝোলের সাথে) উপাদানগুলিকে চুলায় পাকাবার আগে সেদ্ধ করা হয়।

জায়ফল, আতর এবং কেওড়া মাংসের রসা ঝোলকে সুগন্ধযুক্ত করে তুলে। এছাড়া জাফরান এবং এলাচ’ও ব্যবহার করা হয়।

বিরিয়ানির একটি নিরামিষ সংস্করণও রয়েছে, যা গাজর, মটর, ফুলকপি, আলু এবং কাজু জাতীয় সবজি ব্যবহার করে তৈরি করা হয়।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Check Also
Close
Back to top button